June 13, 2024
House #1, Road #17, Rupnagar Residential Area, Mirpur, Dhaka-1216
আন্তর্জাতিক ফুটবল

সাত গোলের রোমাঞ্চে শেষ হাসি বায়ার্নের : ছয় বছর পর চ্যাম্পিয়ন্স লীগ খেললো আর্সেনাল

দুই দল সবমিলিয়ে দিলো সাত গোল।তবে শেষ পর্যন্ত শেষ হাসি হাসলো বায়ার্ন মিউনিখই।চ্যাম্পিয়ন্স লীগের বি গ্রুপের ম্যাচে ঘরের মাঠে তারা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে হারিয়েছে ৪-৩ ব্যবধানে।

 

অথচ এ্যালিয়েন্জ এ্যারেনায় ম্যাচের চতুর্থ মিনিটেই এগিয়ে যেতে পারত ইউনাইটেড। ক্রিশ্চিয়ান এরিকসেনের কাছ থেকে নেওয়া শট দারুণ তৎপরতায় রুখে দেন বায়ার্ন গোলরক্ষক সেন উলরিয়েখ। ম্যাচের প্রথম আধা ঘণ্টায় ইউনাইটেডের গোলের ভালো সম্ভাবনা তৈরি করা আক্রমণ ছিল এই একটিই। বায়ার্নই বারবার হানা দিয়ে ইউনাইটেড রক্ষণে। তবে ওনানা ভুল না করলে স্বাগতিকদের প্রথম গোল পেতে হয়তো বেশ খানিকটা সময়ই অপেক্ষা করতে হতো।

ইউনাইটেডের গোলমুখ খোলার পর উজ্জীবিত বায়ার্ন চার মিনিট বাদে দ্বিতীয় গোলও পেয়ে যায়। বল নিয়ে বক্সে ঢোকা জামাল মুসিয়ালা ডিফেন্ডারদের ঘেরাওয়ে পড়লে বাড়ান জিনাব্রির দিকে। অরক্ষিত জার্মান ফরোয়ার্ড বল জালে পাঠাতে ভুল করেননি। এটি ছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যোগ দেওয়ার পর ওনানার ৬ ম্যাচে ১২তম গোল হজম; যা গত মৌসুমে ইন্টার মিলানের হয়ে লিগে ২৪ ম্যাচে হজম করা গোলের অর্ধেক।

 

এর মধ্যে ৫৩ মিনিটে কেইন আর ৯২ মিনিটে ম্যাথিস তেল বায়ার্নের পক্ষে আরও দুইবার বল জালে পাঠান। এরিকসেনের হ্যান্ডবলের সূত্রে পাওয়া পেনাল্টিতে বায়ার্নের হয়ে নিজের পঞ্চম গোলটি করেন কেইন।

 

ইউনাইটেডের তিনটি গোলই এসেছে পিছিয়ে থাকাবস্থায়। প্রথমটি ২-০ ব্যবধানে পিছিয়ে থাকা ৪৯ মিনিটে হয়লুন্দের কাছ থেকে। ২০ বছর ডেনিশ ফরোয়ার্ড রাশফোর্ডের কাছ থেকে পাওয়া বলে বাঁ পায়ে শট নিলে কিম মিন-জায়ের পায়ে লেগে গতিপথ বদলে জালে জড়ায়। অন্য দুটি গোল কাসেমিরোর, একটি ৮৮ মিনিটে, আরেকটি যোগ করা সময়ের পঞ্চম মিনিটে।

অপরদিকে দীর্ঘ ছয় মৌসুম পর চ্যাম্পিয়ন্স লীগ খলতে নেমে প্রতিপক্ষকে নিয়ে ছেলেখেলা করেছে আর্সেনাল। ঘরের মাঠে তারা পিএসভিকে হারিয়েছে ৪-০ গোলে।

এমিরেটস স্টেডিয়ামে ম্যাচের প্রথম থেকেই দাপট দেখায় আর্সেনাল। যেখানে চ্যাম্পিয়নস লিগে নিজের প্রথম ম্যাচের অষ্টম মিনিটেই দলকে গোল এনে দেন সাকা। এর ১২ মিনিট পর সাকার অ্যাসিস্টে আর্সেনালকে দ্বিতীয় গোল এনে দেন ট্রোসার্ড।

ম্যাচের ৩৮তম মিনিটে ট্রোসার্ডের অ্যাসিস্টে তৃতীয় গোল এনে দেন জেসুস। প্রথমার্ধে তিন গোলের পর দ্বিতীয়ার্ধে একটি গোলই করে গানাররা। ৭০ মিনিটে যেটি আসে অধিনায়ক ওডেগার্ডের পা থেকে।

 

এদিকে গতবারের রানার্সআপ ইন্টার মিলান প্রথম ম্যাচে ধাক্কা খেয়েছে।‘ডি’ গ্রুপের খেলায় রিয়াল সোসিয়েদাদের সঙ্গে ১-১ ড্র করেছে ইতালিয়ান ক্লাবটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *